কিভাবে পণ্য বিক্রয় বৃদ্ধি করা যায়

Knock us for your business/company articles/content & SEO: 01823-660266

কিভাবে বেশি বেশি পণ্য বিক্রয় করা যায় | How to increase sales

কিভাবে বেশি বেশি পণ্য বিক্রয় করা যায়
প্রথমেই বলে নিচ্ছি, কোন পণ্যের অধিক বিক্রয় নির্ভর করে এর চাহিদার উপর। তাই বুঝতে হবে বর্তমান মার্কেটে কোন প্রোডাক্টস্ এর চাহিদা বেশি এবং এর সঠিক ভোক্তাদের নিকট সহজভাবে উক্ত পণ্যদ্রব্যসমূহ সঠিকসময়ে পৌঁছে দিতে হবে।
সূত্র: P4 = P=Products, P=Price, P=Place, P=Persons

  1. Products (পণ্য-দ্রব্য) = প্রতিটি পণ্য তৈরী হয় মানব কল্যাণ বা মানুষের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করা জন্য। ভিন্ন ভিন্ন পণ্য তৈরী হয় ভিন্ন ভিন্ন পেশা-জীবী, অভিরুচির মানুষের জন্য। মানুষের পাশাপাশি অন্যান্য কারণেও পণ্য-দ্রব্য উৎপাদন করা হয়। কিন্তু পরোক্ষ্যভাবে চিন্তা করলে দেখা যায় তার মধ্যেও মানুষের স্বার্থ নিহিত রয়েছে। সুতরাং প্রোডাক্টস্ মানেই পারসন। এবং একজন পারসনই প্রোডাক্টস্ কেনার যোগ্যতা রাখে। কোন জড়বস্তু বা পশুপ্রাণি প্রোডাক্টস কেনার যোগ্যতা রাখে না। প্লেটো একবার বলেছিলেন, ”সাহিত্য এমনটাই হওয়া উচিৎ যার মূল শিকড়টাই আসবে মানব হতে”। তাই সেদিকে লক্ষ্য করেই বলা যায়, কোন প্রোডাক্টস্ এর সহজাত ধর্মই হবে এর ভোক্তার সর্বোচ্চ সন্তুষ্টি অর্জন। প্রোডাক্টস্ এর কিছু কমন ফিচার হল:
  2. এর মানসম্মত গুণাগুণ
  3. এর স্থায়ীত্ত্ব ও মেয়াদোতীর্ণ
  4. এর ব্যবহার উপযোগীতা
  5. সরকার কর্তৃক অনুমোদন
  6. ত্রুটি ও ব্যবহার অযোগ্য
  7. সঠিক অনুপাতে কাঁচামালের ব্যবহার
  8. মসৃণ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা
  9. সুন্দর ও আকর্ষণীয়
  10. সঠিক হলমার্ক ও জেনুয়িন ম্যানুফ্যাকচারারের লেভেলিং
  11. যেকোন ভেজাল, কেমিক্যাল বা ক্ষতিকারক উপাদানহীনতা।
  12. Price (পণের মূল্য) = আমরা একটি প্রবাদ ভালভাবেই জানি। আর তা হল, জিনিস যেটি ভাল দাম তার  একটু বেশি। কিন্তু তাই বলে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক মার্কেট রেট অনুসারে প্রোডাক্টস্ এর দাম হতে হবে। ১৯/২০ হতে পারে। তবে ১৮/২৬ হওয়া যাবে না। সেক্ষেত্রে প্রোডাক্টস্ এর বাউন্স রেট বেরে গিয়ে ভোক্তার চাহিদায় হিট করবে। এবং বিক্রয়ে হ্রাস ঘটবে। সুতরাং মানুফ্যাকচারকে লক্ষ্য রাখতে হবে, উৎপাদন খরচটি যেন বাজারদরের সাথে তাল মিলিয়ে ফিক্সড্ হয়। For an example:

Xiaomi Redmi Note 7 3GB/32GB
Robi Shop ---17,999৳
Pickaboo ---17,999৳

Daraz ---17,999৳
Manufacturer: mi.com=17,999৳
https://www.mi.com/bd/index.html
Redmi Note 7
48MP for Everyone
A new flagship-level experience
48MP + 5MP AI dual rear camera
Qualcomm® Snapdragon™ 660
4000mAh battery
From 17,999
Same price at all stalls and e-comm. Sites.

  1. Place (স্থান,বিক্রয়কেন্দ্র,বাজার) = এবার আসা যাক প্লেস বা বাজার প্রসঙ্গে। প্রোডাক্টস্ হল, প্রাইস হল এখন কোথায় বা কার কাছে কিভাবে প্রোডাক্টসটি সেল করতে হবে। বিশ্ব ভ্রম্মান্ডে বাজার হল উন্মুক্ত। এক্ষেত্রে যেখানে পারসন আছে সেটাই আমার প্লেস। তবে শুধু পারসন বা ভোক্তা হলেই হবে না, তাকে উক্ত পণ্য ক্রয়ের সামর্থবান ভোক্তা হতে হবে এবং তবেই হবে এটি আমার প্লেস বা এই নির্দিষ্ট পণ্যটির সঠিক বিক্রয় কেন্দ্র। এটি অনেক সময় ভোক্তার চাহিদার উপরেও নির্ভর করে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলসমূহ যেখানে ৩জি, ৪জির কোন সেবাই পৌঁছায়নি সেখানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর কদর কতটুকু হবে। যেখানে ইলেক্ট্রিসিটি পৌঁছায়নি সেখানে ল্যাপটপের চাহিদা কতটুকু হতে পারে। বড় কিংবা বিশাল কোন কিছুকে কেন্দ্র চাহিদার আধিপত্ত সৃষ্টি হয়।
  2. Person (ব্যক্তি,ভোক্তা) = এখন আসুন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টির উপর আলোচনা করা যাক আর তা হল আমরা মানব জাতী। মহান আল্লাহ তা’য়ালার ১৮ হাজার মাখলুকাতের মধ্যে আমরা সর্বোত্তম জাতী আশরাফুল মাখলুকাত। কালিদাশের মধুর বানী, “সবার উপরে মানুষ সত্য তাহার উপরে নাই”। বেপারটা সেরকমই, ‘পণ্য তাই যা মানুষের প্রয়োজন হয়’। কালের আবর্তনে লক্ষ্য করা যায় বেঁচে থাকার তাগিদে হক আর কৌতুহল থেকে হক মানুষের প্রায় সব কিছুই প্রয়োজন হয়। আদি যুগের মানুষের এত কিছু প্রয়োজন হলেও তার আবিষ্কার ছিল না। কিন্তু বিজ্ঞান বর্তমান যুগির মানুষকে এসকল প্রযুক্তি উপহার দিয়েছে। আর যা মানুষ ধিরে ধিরে ব্যবহারে অভ্যস্ত হয়ে পড়ছে, এমনটিক নেশাগ্রস্তভাবেই ব্যবহার করছে। যেমন ফ্যান, মোবাইল, টিভি, ফ্রিজ ইত্যাদি যেগুলো কয়েকশত বছর আগের মানুষের কাছে ছিল শুধু মাত্র কল্পনা হিসেবে। কিন্তু বর্তমান যুগের মানুষ এগুলো ছাড়া এক মুহূর্তও চলতে পারে কিনা আমার জানা নেই। তাই বলা যায় মানবজাতী প্রয়োজনে হক বা কৌতুহলবশত হক যেকোন পণ্য একবার হলে ব্যবহারের জন্যে প্রস্তুত থাকে। আর যদি তা হয় তার সাধ্যের মধ্যে। দুবাইয়ের প্রায় মানুষই ব্যক্তিগত উড়ন্ত গাড়ি ব্যবহার করে। বাংলাদেশের মানুষ যানজট নিরসনে এই উড়ন্ত গাড়ি ব্যবহার করতে পারে। কিন্তু কেও তা ব্যবহার করছেনা। যদি সাধ্যের মধ্যে এই কার বিক্রয় হত তবে বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ তা ব্যবহার করতে পারত। এছাড়াও এ গাড়ির উৎপাদন ও যোগান আমাদের দেশে পরিলক্ষিত হচ্ছে না। বাংলাদেশে উৎপাদনের ক্ষেত্রেও অনেক সিমাবদ্ধতা রয়েছে। বাংলাদেশে কোন মটর বা ভাড়ি ইঞ্জিনের গাড়ি উৎপন্ন হচ্ছে না। যার কারনে আমাদেরকে বিদেশি উৎপাদকের উপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল হতে হচ্ছে। যাহোক, পারসন এর আরও একটি অর্থ রয়েছে তা হল পারসন দুই ধরনের হতে পারে তা হল ক) ক্রেতা ও খ) ভোক্তা

ক) ‍যিনি বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ক্রয় করে বিক্রয়ও করতে পারে আবার ভোগও করতে পারে।
খ) কিন্তু যিনি শুধুমাত্র ভোগ করার জন্যই ক্রয় করেন তিনি হলেন ভোক্তা।
তাই বিক্রয়ের পরিসর  একজন ক্রেতার ক্ষেত্রে অধিক পরিমানে হতে পারে কারন এই ক্রেতা বা বায়ার হতে পারে একজন ব্যক্তি বা একটি কোম্পানি আর যার জন্য পণ্যের উৎপাদন বিশাল আকারেও প্রয়োজন হতে পারে।
আবার ব্যক্তি হয় যদি শুধুমাত্র একজন ভোক্তা তবে প্রোডাক্ট এর উৎপাদন কম হলেও কোন সমস্যা নেই।
সুতরাং- সংক্ষেপে বলা যায় ’প্রোডাক্ট ডিপেন্ডস্ অন প্লেস এন্ড পারসন’

Home Page

Next Page